অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলাফল | Side effect of smartphone

অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলাফল


Side effect of smartphone - যদি আপনি মোবাইল ফোন বিছানায় নিয়ে ঘুমান ঘুম থেকে উঠার পর ইমেইল,হোয়াটসঅ্যাপ,ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদি চেক করার অভ্যাস থেকে থাকে তাহলে জানুন অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলাফল

অতিরিক্ত_মোবাইল_ফোন_ব্যবহারের_ফলাফল
অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলাফল


মোবাইল ফোন থেকে যে বিকিরণ বের হয় তা আপনাকে নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে তাই নয় আপনার নানা রকম রোগ হতে পারে ।


১. মোবাইল ফোনের রেডিয়েশন থেকে উৎপন্ন বিপদ এর সব থেকে বড় বিপদ হলো ক্যান্সার । যদি আপনি আপনার মোবাইল ফোন সব সময় পকেটএ বা শরীরের সংস্পর্শে রাখেন তাহলে সেই সম্পর্কিত স্থানে টিউমার হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় আর আপনি সহজেই ক্যান্সারের শিকার হতে পারেন ।


২. রাত্রিবেলা ঘুমানোর সময় যদি মোবাইল ফোন শরীরের সংস্পর্শে বা বুকে রেখে ঘুমানোর অভ্যাস থাকে তাহলে এই অভ্যাস আপনার বিপদেই নয় প্রাণঘাতীও হতে পারে ।


৩. ঘুম না আসা - মোবাইল ফোন অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে রাত্রি বেলা ঘুম না আসা বিশেষ করে রাত্রিবেলা বেশিক্ষণ ধরে ব্যবহার করার ফলে ঘুম না আসা ।


৪. ভুলে যাওয়া রোগ - বর্তমানে বুড়ো হইতে বাচ্চা পর্যন্ত কেউ নিজেকে ফ্রি রাখেন না সবাই খালি সময়ে মোবাইলের ব্যবহার করেন । ফলে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ বা স্কিল ভুলে যান যা মনে রাখা প্রয়োজনীয় ।


৫. মস্তিষ্ক চাপ - অনেকবারই অনেক রাত্রি পর্যন্ত মোবাইল ফোন ব্যবহার করার ফলে রাত্রিতে ঘুমাতে দেরি হয় বা ঘুমানোর সময় কম হয়ে যায় ফলে ঘুমানোর পিপাসা থেকেই যায় আর যদি ঘুম ভালোভাবে না হয় তাহলে নিশ্চয়ই মস্তিষ্ক আরাম পাবে না ।


৬. চোখের ক্ষতি - স্মার্টফোনের রঙিন স্ক্রিন এবং উজ্জ্বল লাইটের স্ক্রিন চোখের জ্যোতির উপর অনেক প্রভাব পড়ে থাকে ।


৭. মাথা ব্যথার সমস্যা - স্মার্টফোন থেকে বের হওয়া ক্ষতিকারক কিরণ মাথা ব্যথা বা অন্য প্রকারের মস্তিষ্ক সমস্যার অত্যন্ত দায়ী হতে পারে ।


৮. বিভ্রান্তির সৃষ্টি- অনেকবার ফোন বন্ধ বা সাইলেন্ট থাকা সত্ত্বেও মনে হয় যেন তার ফোনটা বাজছে । এটাকে একরকমের ফোবিয়া বলা হয়ে থাকে ।


৯. মোবাইলের উপর নির্ভর - অনেকেই যে কোন সময় কোন কিছু অজানা বিষয় জানার জন্য গুগল, ক্যালকুলেটর, ইউটিউব এর ওপর সাহায্য নিয়ে থাকে ফলে আপনি আপনার মস্তিষ্কের ব্যবহার করতে পারেন না এভাবে মোবাইলের উপর নির্ভরতা বেড়ে যায় ।


১০. স্ক্রিন অডিক্সশন থেকে ‌ ক্ষুধা বুঝতে না পারা-কখনো কখনো মোবাইল ফোন ব্যবহার করে এমন বিভোর হয়ে যায় যে খাবার খেতে ভুলে যায় আবার কখনো কোন শিশু যদি খাবার খেতে না চায় তখন তাকে মোবাইল দেখিয়ে খাবার খাওয়ানো হয় । কিন্তু শিশু বিশেষজ্ঞদের মতামত বলেছেন যে স্ক্রিন অডিক্সশনের কারণে শিশুদের ক্ষুধার প্রবণতা হ্রাস পাচ্ছে ।


১১. শিশুরা সম্পূর্ণরূপে সামাজিকরণ হইনা -ডিজিটাল মিডিয়া গুলির কারণে শিশুরা সম্পূর্ণরূপে সামাজিকরণ করতে সক্ষম হয় না এবং এর কারণে শিশুরা কথা বলার প্রক্রিয়াটি তাদের মধ্যে দেরিতে শুরু হয় এই শিশুরা বড় হওয়ার সাথে সাথে সামাজিক যোগাযোগ দক্ষতা সম্পর্কিত সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় ।


আজকের আর্টিকেলে জানলেন যে অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলাফল বা Side effect of smartphone যদি এই আর্টিকেলটি গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে হয় তাহলে অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে ভুলবেন না । ধন্যবাদ..... 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

1 মন্তব্যসমূহ

  1. ধন্যবাদ ভাই, আমি এটা নিয়ে অনেকদিন ধরে কনফিউশনে ছিলাম তবে আজ অনেকটা ক্লিয়ার হলাম। ভালো লাগলে আমার সাইট টাও ঘুরে আসবেন
    https://www.dwbangla.com

    উত্তরমুছুন